Thursday, June 21, 2018

মুসলমান হয়েও যে ১৭ শ্রেনীর লোক জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবে না কিন্তু কেন ? - শাইখ আহমদউল্লাহ ।












আসসালামু আলাইকুম, 

জাহান্নামী মানুষ ২  রকম।   








ক) যারা অমুসলিম,  মুসলিম নয় তারা যাবেই, কিন্তু মুসলিম হয়েও জান্নাতে যাবেনা, 
খ) যারা মুসলিম হয়েও জাহান্নামে যাবে এমন ১৭ শ্রেনীর লোক পাওয়া যায় বিভিন্ন সহীহ হাদিসে  এসেছে, আল্লাহ কোন কালে মাফ করলে পরে তারা জানাতে যাবে। কিন্তু যে একবার জান্নাতে প্রবেশ করবে সে আর জান্নাত থেকে বের হবেনা, বা তাকে বের করা হবেনা। 




 আসুন জেনে নিই সেই ১৭ শ্রেনীর মানুষদের পরিচয়,
 হয়তো সতর্ক হয়ে যেতে পারবো আমরা ----------- 

১। যে শরীর হারাম দিয়ে গঠিত। অর্থাৎ হারাম উপায়ে অর্থ অর্জন কারী ব্যক্তি। তা দিয়ে জামা কাপড় কেনা, কিছু কিনে খাওয়া, কিছু কিনে অন্যত্র জমা রাখা, জমি কেনা ও হতে পারে।  

২। আত্মীয়তার সম্পর্ক ছিন্নকারী। 

 শরিয়তের কোন কারণ ছাড়া কথায় বার্তা - উঠা বসা বন্ধ করে দেওয়া। 

৩। প্রতিবেশী কে যে কস্ট দেয় যে। কোন ময়লা, আবর্জনা, কিছুর পচা গন্ধ বা চিৎকারের কথা বার্তা, বা গান বাজানোর দ্বারা।

৪। মা বাবার অবাধ্য সন্তান।  কোন কুফুরী বা শিরকী কাজের আদেশ মানবেন না, এটা ছাড়া যে কোন আদেশ আপনি মানতে হবে। তবে ব্যবহার খারাপ করা যাবেনা।

৫। উগ্র মেজাজের মানুষ, সকলকে দমায়ে রাখতে চায় যে, কঠিন স্বভাবের মানুষ, বিনয় বিনম্রতা হীন, খটমট করে সারাক্ষন। 


৬। যে সকল মনিবেরা তাদের অধিনস্থ দেরকে ধোকা দেয়। সে কোন কোম্পানীর মালিক ও হতে পারে, কোন লিডার ও হতে পারে।

৭। অন্যের সম্পদ কে অন্যায়ভাবে আত্মসাত কারী ব্যক্তি।

৮। উপকার করে খোট দান কারী ব্যক্তি।

৯। চোগলখোর ব্যক্তি। এর দোষ ওর কাছে, ওর দোষ এর কাছে বলে, মানুষের মধ্যে “লাগিয়ে দেয়”। এর মাধ্যমে সবার কাছে ভালো থাকতে চায় এমন লোকও। 

১০।  অন্যের বাবা কে নিজের বাবা হিসেবে পরিচয় দেওয়া। অনেক সময় পালক সন্তান রা এরকম করতে পারে, যে জন্ম দিলো তাকে না বলে যে পালন করে তাকে বাবা বলে পরিচয় দেয়।

১১। যার মনের ভেতর অহংকার আছে, যে গর্ব। অহংকার করে। অহংকার পড়াশূনা, পোশাক, চেহারা, মান সম্মান, কর্ম বা বেতনের ক্ষেত্রেও করতে পারে। অন্যকে নিজের চেয়ে এসকল দিক থেকে কোন এক্টীতে বা কয়েকটিতে ছোট ভাবা / নিজেকে বড়, ভালো , উন্নত ভাবা ই অহংকার।

১২। যে ব্যক্তি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে ফলো করেনা, তার নির্দেশকে মান্য করেনা ।

১৩। যে মহিলা অকারনে তালাক কামনা করে / তালাক চায় সেই মহিলা। কআরণ, শয়তান সবচাইতে খুশী হয় সেই যায়গাতে যেখানে ২ জনের সংসারে বিচ্ছেদ ঘটে যায়। আর তালাক চাওয়া ও সেই অথের উপায় ই।

১৪।  দুনিয়াবী উদ্দেশ্যে যারা এলেম শেখে। যেমন – লোকে মাওলানা বলবে, দাওয়াত টাওয়াত খাওয়া যাবে, লোকে ভাও বলবে ও কথা শুনবে,  এরকম উদ্দেশ্য  থাকিলে । আলাহকে খুশি করা ছাড়া অন্য কোন ধান্ধায় এলেম অর্জন করলে। বা যে কোন আমল করলে।

১৫। দাড়ি বা চুলে কোন মেহেদী মিশ্রন ছাড়া পিউর কালো কলপ ব্যবহার করলে।

১৬। যে কোন ভালো কাজ করে তা ফলাও ও প্রচার করা।

১৭। যে ওয়ারিশ দেরকে সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করে । আমরা যাচাই করি, আমরা যেন এই ১৭ শ্রেনীর ভেতর না পড়ী, পড়ে থাকলে মাফ চাই আল্লাহর কাছে ও দূরে চলে যাই সেই গুনাহ থেকে, তাহলে আমরা আল্লাহর কাছে জান্নাত আশা করতে পারি ইন শা আল্লাহ।


  • এই বর্ননা রেফারেন্স হাদিস আরবী বাংলা সহ  - 
  •  নিচে ভিডিও তে দেখুন শায়খেয় মুখেই ------------ 







Monday, June 18, 2018

Ojoo থেকে এখন পেমেন্ট দিচ্ছে বিটকয়েনে- Trusted and legit Monthly simply 3000/-


আসসালামু আলাইকুম। 
readme2know

প্রথমে নিচের লিংকে ক্লিক করে রেজিস্ট্রেশন করুন - আমি  রেফারল সহ  লিংক ই দিচ্ছি । লিংক এড়িয়ে রেফারেল ছাড়া কেহ রেজিস্ট্রেশন করিলে আপনার ইনকামের কমিশন পাবে এডমিন (আমি নয়),  আর আমিও আপনার নাম ঠিকানা (আপনি ই যে আমার রেফারালে আছেন)  না জানার ফলে কোন সমস্যার হেল্প ও করা যায়না।   আর কে কে আমার রেফারালে আছে তাও দেখা যায়। সেখানে পার্সোনাল মেসেজ (personal message) সিস্টেম আছে। যাহোক -  






 এনটার চাপুন, এমন একটি পেজ আসবে যেখানে আপনাকে ১, ২, ৩, ৪  লেখা অনুযায়ী রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। ১ এ ইউজারনেম (কোন স্পেস ছাড়া), ২ ও ৩ পাসওয়ার্ড, ৪ এ  ইমেইল, ৫ এ ক্যাপচা।


 



যেটা দেখছেন এমন ক্যাপচা সহজ এটা পাইতে হইলে এর নিচে দেখবেন   switch to another captha  আছে সেখানে ক্লিক করবেন।  দেখুন নিচের ছবি  ১ নং এ।  


 আমি পিসি এর টা দিলাম যাতে সব ক্লিয়ার দেখা যায়। ফোনেও কাজ করতে পারবেন একই ভাবে মোবাইল ভিউ তে। 


ক্যাপচা টাইপ করে ২ এর ইয়েস,   ৩ এর রেজিস্টার করুন। উল্লেখ্য যে, আপনি জিমেইল বা ফেসবুকের উপর ক্লিক করেও একাউন্ট করার অপশন আছে কিন্তু তা আপনি কেন করতে যাবেন? রেজিস্টার ই করা  ভালো। এই সাইট যদিও ট্রাস্টেড কিন্তু কেন আমি আমার ফেসবুকে বা গুগল একাউন্টে তাদের পারমিশন দিয়ে রাখতে যাবো বলুন।  আপনার সব চাইতে ভালো বন্ধু কে কি আপনার ব্যাংকের লকারের চাবি দিয়ে রাখবেন? হাহা! আশা করি বুঝেছেন ।  




রেজিস্টার করার পর আপনার জিমেইল চেক ক্রুন ও নতুন আসা লিংকে ক্লিক করে একাউন্ট ভ্যালিড করুন।





অতঃপর লগ ইন এ ক্লিক করে আপনার ইউজারনেম, পাস দিয়ে ও ক্যাপচা পুরন করে লগিন করুন।


প্রথমে দেখে নিই এড কিভাবে দেখবেন? উপরে দেখুন paid to click ads  এখানে কিল করুন। ধৈর্য ধরে এটা পুরো পড়ূন, দাম কম দেখে দৌড় দিলে কি হবে, মাসে সহজে এখান থেকে অনেক ফ্রিল্যান্সার রাই ৩০০০০ টাকা  কামাই করে বুঝলেন। কৌশল লাগে। আমি কৌশল টাও বলে দেবো।  তাছাড়া এটা ট্রাস্টেড সাইট।



ঠিক এই রকম এডআসবে  ১৭ টা মত, যা প্রতিটি টাইম ও ভ্যালু থাকবে।  একেকটায় ক্লিক করলে এরকম  ১ম টার মত হয়ে যাবে আর টাইম লেখা ও ডলার চলে যাবে এড এর উপর থেকে। 






এড এ ক্লিক করলেই অটো ৫ সেকেন্ড লোড হয়ে অটো একাউন্টে যোগ হয়ে যাবে, আর কিছু করতে হবেনা। তার পর ডান পাশেও আমার মাউস দেখছেন  সেখানেও ক্লিক করতে পারেন আবার সরাসরী নতুন উইন্ডো ক্লোজ করে দিতে পারেন।


তাতে আগে উইন্ডো তে ফরে আসবে ও একেকটায় ক্লিক করলে এরকম  ১ম টার মত হয়ে যাবে আ টাইম লেখা ও ডলার চলে যাবে এড এর উপর থেকে।


এবার আসি আমরা পার্সোনাল সেটিং এ। সেটিং (Setting) থেকে পার্সোনাল সেটিং (personal setting) টা ঠিক করে নিতে হবে। গোল চিহ্নিত অংশ দেখে আপনার একাউন্টে সেখানে যাবেন। তারপর ----- 


তারপর  লাল কালির ১ এর যায়গাতে আপনার ইমেইল,

২ এর যায়গাতে পেপাল যদি থাকে, না থাকিলে কিছুই দিবেন না, ফাকা রাখিবেন।

৩ নাম্বারে বিটকয়েন এড্রেস দিবেন। কিভাবে বিটকয়েন একাউন্ট খুলবেন তা দেখুন এইলিংকে (ক্লিক করুন) ,  আর কোথায় পাবেন এড্রেস তা দেখুন সেখানে নিচের ছবিতে।

৪ এর যায়গাতে  যা আছে তা সিলেক্ট করবেন। যারা কোম্পানী থেকে চালাতে চান তারা ফার্ম সিলেক্ট করতে পারেন।
পেজা পেমেন্ট সাইটের সমস্যার কারণে দিচ্ছেনা। আমি তাদের সাথে ইমেইলে কথা বলেছি। এই মুহুর্তে তা আপলোড করলাম না, পরে একদিন বলা যাবে।




এবার নিচে এসে ১ – ২ এ নাম। ৩ দেশ, ৪ এ থানার নাম ই লিখবেন, বাড়ির নাম মামি লিখিনা, ৫ এ জিপ কোড  যা ৪ সংখ্যার হবে, আমি জেলার কোড দিছি কিন্তু স্ক্রিণ শোটে ডেমো ই রেখেছি।  ৬ এ জেলার নাম, ৭ এ Mobile number, ৮ বার্থ ডে  এর তারিখ, ৯ এ আপনার লগিন করার জন্য যে পাসওয়ার্ড দিয়েছেন তাহা দিবেন। এবং ১০ এ ক্লিক করে আপডেট।



এটা হলো বেশী ইনকাম এর জন্য আপগ্রেড অপশোন, এখন  ই করার দরকার নাই, ২-১ সপ্তাহ   কাজ করুন তারপর আপগ্রেড করিবেন।  না বুঝে আপগ্রেড করিলে রেফারাল মেইন্টান্যান্স না বুঝিলে পরে দিন এর ক্লিক মাইর যাবে। অর্থাৎ, আপনি দিনে কমপক্ষে ৪ ক্লিক না করিলে রেফারালস দের ক্লিক এর টাকা পাবেন না।



আবার কেউ ভাবিয়েন না রেফারাল ভাল লাগেনা। না এখানে ডিরেক্ট রেফারাল না  করেও বিপুল পরিমান আয় করা সম্ভব।     RENTED REFFERAL   কিনতে  পাওয়া যায়। যা নিচের দিকে বিস্তারীত বলতেছি।  



আপগ্রেড এর ২ টা অপশন, ২ ও ৩ দেখুন, সবাই ৩ ই করেন। কারন রেফারাল ফ্রি কিনতে পারা যায়। ফি বেশি তাই প্রথমেই  কেনার সামর্থ্য আমারও নাই। :D টাকা এড ফান্ডে গিয়ে (১) এড করা যাবে মুল আয় থেকে, অথবা বিটকয়েন ইনভেস্ট করে।    ৪ এ ক্লিক করে আপগ্রেড করা যাবে।



এবার আসুন পার্সেজ রেফারালে।
১ ডলারে ৫ টা পাবেন যারা ১ মাস ক্লিক করে, আর প্রতি সপ্তাহে ১ বার ই কেনা যায়। অর্থাৎ আয়ের টাকা দিয়ে ও কেনা যায় আবার ইনভেস্ট করেও প্রথম দিন থেকে নয়, ২য় দিন থেকে রেফারাল কিনে আয় বাড়ানো যায়, সেই আয় দিয়ে আবার রেফারাল কেনা ,আর  দিনে আপনি করবেন মাত্র (কমপক্ষে)  ৪ ক্লিক। নয়তো রেফ ক্লিকের টাকা যোগ হবেনা। তপবে প্রথম দিকে আপনি ১৫ টা ই ক্লিক না করলে আর রেন্টেড রেফারাল ,১, ২ বা  ৩ টা কিনলে আপনার লস হলো। কারণ ৩ জনের ক্লিক আর আপনার  ১৫ ক্লিক ডবল ইঙ্কাম না হয়ে সিঙ্গেল হবে আপনি ৪ টায় ক্লিক করে রেখে দিলে। মনে হয় ক্লিয়ার। না হইলে কমেন্ট করুন। আমি নেট এ  থাকিলে সকল প্রশ্নের উত্তর দেই।  

ডান পাশে ঝুড়ি তে ক্লিক করিলে কিনিতে পারিবেন।




আগে পার্সেজ ব্যালেন্স এড করে নিতে  হবে। মুল টাকা Auto এখানে আসেনা।  এড ফান্ড এ ক্লিক করুন।






দেখুন ১ বিটকয়েন, তার নিচে ভায়া ব্যালেন্স ট্রান্সফার, যেকোন একটা দিন,।  ২ এর নেক্সট এ ক্লিক করুন ।


কমপক্ষে ২ ডলার যোগ করা যাবে । 


এমন একটা এড্রেস আসবে , তাতে পাঠাতে হবে পরিমান লেখাই আছে। আর  আগেই পার্সোনাল সেটিং এ আপনার বিটকয়েন এড্রেস এড করে নিবেন।  

অবশেষে ক্যাশ আউট ফান্ডস। বাম পাশে গোল চিহ্নিত স্থানে ক্লিক করুন, নির্দিষ্ট পরিমান ক্লিক হলেই আপনি তা বিটকয়েনে নিতে পারবেন।



উপরের টা নতুন দের, আর উইথড্র আসলেই এরকম পাবেন ------ 

১ মিনিট থেকে ৩০ মিনিট,  ৩-৪ ঘন্টাও লাগতে পারে মাঝে মাঝে, তবে এর ভেতর পেমেন্ট পেয়ে যাবেন।


তাছাড়া অফারস এর ভেতর এরকম আরোও অপশন আছে আয় করার জন্য। ট্রাই বেস্ট। 
আমি দেখেছি বড় বড় ফ্রিল্যান্স্যার রাও এখানে কাজ করে এই সামান্য পিটিসি তে। হা আপনি কোন রেফারাল কেনা ছাড়া কাজ করলে ৫৫ দিন লাগবে ২ ডলার হতে মে বি। তাতে কি  তারা কেন কাজ করে।?  ১০০০  এর মত রেফারাল বানাতে ১  কয়দিন লাগে?  এরকম রেফারাল থাকলে মাসে ৩০ থেকে ৩৫ হাজার   এখান থেকেই আসবে, মাসে ৫০ থেকে ১০০ ডলার কি তা থেকে আপগ্রেড আর রেন্ট রেফারাল এ খরচ করা কস্ট? হতে পারে চাকুরীর ফাকে ফাকে এটা ২য় ওয়ার্ক। বা বেকারত্বে একমাত্র কাজ। ভেবে দেখুন ............। 




income  এর আরও উপায় আছে এখানে।  উপরে  OFFERS (new)  তে ক্লিক করুন। 



আজ আর নয়। 


♥ Designed By: SmKhalid ♥


The Pure Life Guidelines© , All Rights Reserved.